ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক নি’ষিদ্ধ করে সুদানে ফতোয়া জারি

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিরো’ধিতা করেছে সুদানের ইসলামি প্রশাসন কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) দেশটির ইসলামি কর্তৃপক্ষ এ ত’থ্য জানিয়েছে। ১৯৯৩ সালে সুদানকে সন্ত্রা’সবা’দে সহযোগী রাষ্ট্র হিসেবে কালো তালিকাভু’ক্ত করে ওয়াশিংটন।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, ইসরাইল-সুদান পরস্পর সম্পর্ক স্বাভাবিকের চু’ক্তি করতে যাচ্ছে-খার্তুম কর্তৃপক্ষের এমন অবস্থান প্রকা’শ্যে আসার পরই তেল আবিবের সঙ্গে সম্পর্ক নি’ষি’দ্ধ করে ফতোয়া জারি করেছে দেশটির ইসলামি প্রশা’সন কর্তৃপক্ষ।

গেলো মাসে সুদানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওমর কামার বলেন, দ’খ’লদার ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করলে খার্তুমকে যুক্তরাষ্ট্রের ত’থাক’থিত সন্ত্রা’সবা’দে ম’দদদা’নকারী রাষ্ট্রের তালিকা থেকে বা’দ দেয়ার বিষয়টি গু’রুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করবে ওয়াশিংটন।

স্থানীয় গণমাধ্যমকে তিনি আরও বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সুদানের রাজধানী খার্তুম সফরে এতে দুটি প্রস্তাব দিয়েছেন। তার মধ্যে একটি ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিকের চু’ক্তি। দ্বিতীয়টি, প্রথম শ’র্ত পূরণ হলে, সুদানকে সন্ত্রা’সবা’দে সহযোগিতাকারী রাষ্ট্রের কালো তালিকা থেকে মুক্তি দেবে মার্কিন প্রশা’সন।

২০১৯ সালের এপ্রিলে সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে ক্ষ’মতাচ্যু’ত করার পর থেকে খার্তুমের সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্কের উন্নয়ন ঘ’টতে থাকে, যা অব্যাহ’তভাবে বাড়ছে। ১৯৯৭ সালে সুদানের ওপর অর্থনৈতিক নিষে’ধা’জ্ঞা আরো’প শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র।