রিফাতকে কো’পানোর সময় ঠেকানোর অভিনয় করেছিলেন মিন্নি

বরগুনার চাঞ্চল্যকর রিফাত হ’ত্যা মা’মলায় নি’হতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা ওরফে মিন্নি ছিলেন হ’ত্যার মূল উদ্যেক্তা এবং তার পরামর্শ ও পরিকল্পনায় রিফাতকে হ’ত্যা করা হয়।রিফার হ’ত্যার ২৩২ পৃষ্ঠার রায়ে এসব ত’থ্য তুলে ধরে আ’দালত। রায়ে উল্লেখ করা হয়, ভিক’টিম রিফাত শরীফ হ’ত্যার পরিকল্পনার মূল উদ্যোক্তা ছিলেন মিন্নি এবং তার উদ্যোগে আসা’মি নয়ন বন্ড সাড়া দেয় এবং তার পরামর্শে হ’ত্যার পরিকল্পনা করে, এরপর নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজীসহ অন্য আসা’মিদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে চূড়ান্ত করে।

ঘটনার সময় আসা’মি নয়ন বন্ড, রিফাত ফরাজী, রাব্বী, টিকটক হৃদয়, সিফাত, হাসান ও মিন্নি পরিকল্পনা মোতাবেক রিফাত শরীফকে হ’ত্যার পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করে। আসা’মি নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজী ভিকটিম রিফাত শরীফকে কো’পানোর সময় নয়ন বন্ডকে ঠেকানো আ’সামি মিন্নির অভিনয় ছিল এবং সুকৌশলে রিফাত শরীফকে আ’ঘাত করতে সহায়তা করে মিন্নি।

রায়ে আরও উল্লেখ করা হয়, এ মা’মলার ভি’ডিও ফুটেজ ২টি এই মাম’লার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও জীবন্ত সাক্ষ্য। এসময় মিন্নির সাহায্য করার ঘটনা রক্ষা করার কৌশল মনে হলেও সে তার স্বামীকে রক্ষা করতে ঢাল না হয়ে অন্যদের দিকে নির্ভী’কভাবে নির’স্ত্র করার চেষ্টা করছিল। যাতে আ’সামিদের সাথে তার সম্পর্কের গভীরতা প্রকাশ পায়।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁ’সির আদেশ দেয় আ’দালত। রোববার (৪ অক্টোবর) সকালে মিন্নিসহ তাদের রেফারেন্সের নথি পৌঁছাবে হাইকো’র্ট।

সূত্র: সময় নিউজ।