আজারবাইজানের প্রেসিডেন্টকে সমর্থন জানিয়ে রুহানির ফোন

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভকে আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষায় সমর্থন জানিয়ে টেলিফোন করেছেন ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। মঙ্গলবার হাসান রুহানি টেলিফোনে তার সমপর্যায়ের আজারবাজানীয় নেতার সঙে আঞ্চলিক নিরাপত্তার বিষয় নিয়েও আলোচনা করেন।

ইরানি ওয়েবসাইটের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, তেহরান আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও প্রতিবেশীদের আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষায় সমর্থন করে। রুহানি আলিয়েভকে বলেন, এই ইস্যু আঞ্চলিক শান্তি রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ এবং অবশ্যই আমাদের প্রতিবেশীদের আঞ্চলিক অখণ্ডতা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বের।

বিরো’ধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে ১০ দিন ধরে চলা এই সংঘাতে ২০০’র বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে ১৯৯০ দশকের যুদ্ধে প্রায় ৩০ হাজার মানুষের মৃ’ত্যু হয়।

আর্মেনিয়া সাবেক সোভিয়েত দেশগুলোর সামরিক জোটের সদস্য। এই জোটের নেতৃত্বে রয়েছে রাশিয়া। আর্মেনিয়ার সঙ্গে বিরো’ধপূর্ণ সম্পর্ক থাকা তুরস্ক আজারবাইজানের ঘনি’ষ্ঠ মিত্র। ইয়েরেভানের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, কারাবাখে সংঘা’তে আজারবাইজানকে শক্তিশালী করতে উত্তর সিরিয়া থেকে ভাড়াটে সেনা পাঠিয়েছে তুরস্ক। তবে আঙ্কা’রা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

নাগোরনো-কারাবাখ আজারবাইজারের ভেতরে হলেও আর্মেনীয় নৃগোষ্ঠীর লোকজন অঞ্চলটি নিয়ন্ত্রণ করে আসছে, আর্মেনিয়া তাদের সমর্থন দিচ্ছে। ১৯৮৮-৯৪ সাল পর্যন্ত যু’দ্ধের মধ্য দিয়ে অঞ্চলটি আজারবাইজান থেকে বিচ্ছিন্ন হলেও স্বাধীন দেশ হিসেবে এখনো কারো স্বীকৃতি পায়নি।

সূত্র: যুগান্তর।