বরিশাল বাকেরগঞ্জের ৪ শিশুকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর

বরিশালে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার চারশিশুকে হাইকোর্টের নির্দেশে জামিনে মুক্তির পর বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এদিকে, ফেনীর সোনাগাজীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা তমিজ উদ্দিন নয়নকে গ্রেফতার এবং সুনামগঞ্জে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকারের ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকাল ৮ টায় বরিশালের চারশিশুকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচারের পর বৃহস্পতিবার রাতেই হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ বরিশালের শিশু আদালতকে জামিন নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন। রাতের মধ্যেই তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয়। এরপর চার শিশুর জামিন মঞ্জুর হয় বরিশাল শিশু আদালতে। ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এনায়েত উল্লাহ এবং বাকেরগঞ্জ থানার ওসিকে তলব করেছেন হাইকোর্ট।

প্রতিবেশি এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ৬ অক্টোবর চারশিশুর বিরুদ্ধে মামলা হয়। আদালতে হাজির করা হলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে তাদের পাঠানো হয় শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে। এদিকে, বৃহস্পতিবার রাতে ফেনীর সোনাগাজীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে উপজেলার ভাদাদিয়া গ্রাম থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা তমিজ উদ্দিন নয়নকে।

এর আগে, পহেলা অক্টোবর সকালে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় এলাকার একটি দোকানের ভেতর নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত তমিজ। সেই রাতেই সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন ওই ছাত্রীর মা।

অন্যদিকে, সুনামগঞ্জে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক তরুণী। এ ঘটনায় ধর্ষক মানিক মিয়াকে বৃহস্পতিবার রাতে দৌলতপুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে সন্ধ্যায় দোয়ারাবাজার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছে নির্যাতিতার পরিবার।