সুনীল নারাইনের মাথা অসম্ভব ঠান্ডা

শেষ ওভারে তিনি বল করেছেন। জিতিয়েছেন দলকে। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে মাত্র ২ রানে হারিয়ে উঠে ‘নায়ক’ সুনীল নারাইন জানালেন, মারাত্মক চাপে পড়লেও মাথা ঠান্ডা রেখেই নিজের কাজ সেরেছেন। শেষ ওভারে বল করার সময় রক্তচাপ রীতিমতো বেড়ে গিয়েছিল তাঁর! তখনও অবশ্য নারাইন জানতেন না কী ধাক্কা আসছে রাতে।

শেষ ওভারে পঞ্জাবের দরকার ছিল ১৪ রান। আর শেষ বলে ছয় মারতে পারলেই ম্যাচ চলে যেত সুপার ওভারে। নারাইন বলেছেন, ‘‘শেষ বলটা আমি বাইরের দিকে করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সেটা করার পরে মনে হল ভুল করে ফেললাম! আমি কিন্তু আগেও এ রকম বল করেছি। আর এ রকম একটা অবস্থার মধ্যেও আমি মাথা ঠান্ডা রেখেছি। আসলে আমি এ রকমই।’’ পাশাপাশি নাইট-নেতা কার্তিক বলেছেন, ‘‘বারবার নারাইন এ ভাবেই ম্যাচ বার করে দেয়।

ওর মাথা অসম্ভব ঠান্ডা। সব সময় চেষ্টা করে দলকে জেতাতে সেরা রাস্তাটা বার করতে।’’ যোগ করেছেন, ‘‘এই ম্যাচ জয়ের কৃতিত্ব অবশ্য অন্যদেরও কম নয়। বিশেষ করে অইন মর্গ্যান আর ব্রেন্ডন ম্যাকালামের নাম আমি আলাদা করে করব। আমি খুবই ভাগ্যবান যে বিশ্বের সেরা অধিনায়ক আমার দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য।’’

কার্তিক আরও জানিয়েছেন, যে ভাবে কেএল রাহুল ও মায়াঙ্ক ব্যাট করছিলেন তাতে এই ম্যাচ বার করতে বিশেষ কিছু একটা করা জরুরি ছিল। স্বীকার করেছেন, আন্দ্রে রাসেলের চোট তাঁদের কাছে একটা বড় উদ্বেগের বিষয়।-আনন্দবাজার।