ওয়াজ মাহফিল দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় ধর্ষণ বেড়েছে : অধ্যক্ষ ইউনুছ

করোনা মহামারীর কারণে দীর্ঘদিন ধরে ধর্মীয় মাহফিল, সভা-সমাবেশ বন্ধ থাকায় মানুষ দ্বীনবিমুখ হয়ে অপরাধের দিকে ধাবিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। তিনি বলেন, নৈতিকতা শিক্ষা ও ধর্মীয় সভা ওয়াজ-মাহফিল করার অনুমতি দিলে মানুষের মধ্যে আল্লাহভীতি সৃষ্টি হয়ে অন্যায় থেকে ফিরে আসতে পারে।

রোববার বিকালে আশুলিয়ার চারাবাগ কারিমিয়া মাদ্রাসা মিলনায়তনে এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ইউনুছ আহমাদ বলেন, ধর্ষক ও দুর্নীতিবাজদের শরীয়াহ আইনে বিচার করলে দেশে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন থাকবে না। মানুষের মধ্যে মানবিক মূল্যবোধ না থাকায় আল্লাহবিমুখ হয়ে বিপথগামী হচ্ছে।

মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে হলে শিক্ষার সর্বস্তরে ইসলামী শিক্ষা তথা আল্লাহমুখী শিক্ষার বিকল্প নেই। তিনি বলেন, দেশে আইনের শাসন না থাকলে এবং নাগরিক অধিকার খর্ব হলে মানুষ অপরাধপ্রবণ হয়ে উঠে। তিনি বলেন, ইসলাম সার্বজনীন জীবন ব্যবস্থা। মানুষের কল্যাণ করাই ইসলামের মূল লক্ষ্য। কাজেই ইসলাম ছেড়ে দিয়ে অন্য বিধান তালাশ করলে তা আল্লাহ কখনও গ্রহণ করবেন না। তাই সবাইকে ইসলামের সুমহান আদর্শে ফিরে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম। অধ্যক্ষ ইউনুছ আহমাদ আরও বলেন, ধর্ষণ, গুম, খুন ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের ফলে করোনা মহামারীর চেয়েও ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগ আজ মানুষের জন্য অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সরকারের লোকজন গুম, খুন ও ধর্ষণের মহোৎসবে মেতে ওঠে জাতিকে কলঙ্কিত করেছে। মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম বলেন, সন্ত্রাস, মাদক ও নারী ধর্ষণ দেশে আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষ ক্রমেই অপরাধপ্রবণ হয়ে উঠছে। আইনশৃঙ্খলার অবনতিতে এসব অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সূত্র: যুগান্তর।