‘ক্যামেরার পেছনের কাজ শিখছি’

সাবিলা নূর। মডেল অভিনেত্রী। ধারাবাহিক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন থ্রি’ নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন থ্রি’ নাটকটিতে কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

বেশ ভালো। আমার মনে হয়, পুরোপুরি কমেডিনির্ভর এই নাটকের সঙ্গে দর্শকরা নিজেকে চিন্তা করতে পারেন। দেখুন, আমরা কিন্তু সব সময় আনন্দ খুঁজি। আর যেহেতু আনন্দের প্রায় প্রতিটি উপকরণ এই নাটকের গল্পে রয়েছে, তাই এত সাড়া ফেলেছে। নির্মাতা কাজল আরেফিন অমিও বেশ যত্ন নিয়ে কাজটি করছেন। পাঁচ-ছয়জন ব্যাচেলরের গল্প নিয়ে নির্মিত এই নাটকে আমি ব্যাচেলরদের সঙ্গে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি। তারা আমার ভালো বন্ধু। আমার অভিনীত ‘নাবিলা’ চরিত্রটিও দর্শক পছন্দ করছেন।

আপনি শুধু একটি ধারাবাহিকেই অভিনয় করছেন। এর কারণ কী?

ক্যারিয়ারের শুরু থেকে ধারাবাহিকবিমুখ ছিলাম। এখনও সেই সিদ্ধান্তে অটল। ধারাবাহিকে চরিত্রের গুরুত্ব ও গল্পের ধারাবাহিকতার শেষ থাকে না। এ ধরনের নাটকে অনেক সময় দিতে হয়। কিন্তু সেই অনুযায়ী দর্শকদের কাছ থেকে সাড়া মেলে না। এসব কারণেই নতুন কোনো ধারাবাহিকে আপাতত কাজ করছি না। দর্শকরা যে ধরনের কাজ পছন্দ করেন সামনেও সে ধরনের নাটকে কাজ করার চেষ্টা করব। তাদের হতাশ করতে চাই না।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখলাম ছোট ছোট ভিডিও কনটেন্ট বানানোর প্ল্যাটফর্মে নাম লিখিয়েছেন …

শর্ট ভিডিও তৈরির প্ল্যাটফর্ম লাইকি। এর ব্যবহারকারী তরুণ গ্রাহকদের বিভিন্ন প্রতিভা প্রদর্শনের ও শর্ট ভিডিওগুলো আরও আকর্ষণীয়, মজাদার ও আনন্দদায়কভাবে তৈরি করতে এ ক্যাম্পেইন চালু করেছে প্ল্যাটফর্মটি। এতে অংশ নিতেই কিছু ভিডিও বানিয়েছি। এ ধরনের ছোট ছোট ভিডিও তৈরির মাধ্যমে অনেক মেধা বেরিয়ে আসছে। নাচ থেকে শুরু করে মেকআপ, স্টাইলিং- সব ধরনের ট্যালেন্ট এসব প্ল্যাটফর্মে ভিডিও পোস্ট তুলে ধরছে অংশগ্রহণকারীরা।

নিজের ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন?

শুধু ক্যামেরার সামনে নয়, অভিনয়ের পাশপাশি ক্যামেরার পেছনেও কাজ করছি। ইউটিউব চ্যানেল চালানো সহজ নয়। লাইট, ক্যামেরা ঠিক রেখে ভিডিও শুট নিজেই করছি। ভিডিওর মান ঠিক করার জন্য সম্পাদনার কাজও আমাকে করতে হচ্ছে। অনুষ্ঠান নির্মাণের সবকিছু শিখছি। ইউটিউবে যেসব কনটেন্ট প্রকাশ করেছি, সব ক’টিতেই দর্শকের প্রশংসা পেয়েছি। দর্শকের সঙ্গে যোগাযোগও বাড়ছে।

নাটক, টেলিছবি, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের ইচ্ছা হয় না?

চলচ্চিত্র বড় জায়গা, বড় মাধ্যম। এখানে অনেক প্রস্তুতি নিয়ে আসতে হয়। কারণ আমি চাই না দু-একটি ছবিতে অভিনয় করে নিজেকে গুটিয়ে নিতে। সে কারণে টিভিতে কাজের মাধ্যমে নিজেকে একটু একটু করে বড়পর্দার জন্য প্রস্তুত করছি। পাশাপাশি লেখাপড়া করছি। গ্র্যাজুয়েশন শেষ হতে আরও সময় লাগবে। এরপরই আমাকে চলচ্চিত্রে দেখা যাবে বলে আশা করছি।

সূত্র: সমকাল।