এবার গাজীপুরে পার্লার কর্মীকে প্রাইভেটকারে তুলে ধর্ষণ

গাজীপুরের কাশিমপুরে প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে এক পার্লার কর্মীকে (২৫) ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে মহানগরীর জিরানী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত প্রাইভেটকার চালক পিন্টু মিয়াকে (৩০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের নাওলা গ্রামের আব্দুল বারেকের ছেলে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী জানায়, ওই পার্লার কর্মী কালিয়াকৈর রেন্ট-এ-কার থেকে প্রাইভেটকার নিয়ে বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের সুবাদে পরিচয় হয় পিন্টু মিয়ার সাথে। বৃহস্পতিবার ওই পার্লার কর্মী তার ৮ বছরের ছেলেকে নিয়ে পিন্টু মিয়ার প্রাইভেকার করে ঘুরতে বের হয়। এক পর্যায়ে চন্দ্রা-নবীনগর সড়কের জিরানী এলাকায় পৌঁছে ছেলেটিকে একটি দোকানে নামিয়ে রেখে ওই পার্লারকর্মীকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে পিন্টু।

পরে তার চিৎকারে পথচারীরা এগিয়ে এলে প্রাইভেটকার নিয়ে পিন্টু দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে ওই নারী কাশিমপুর থানায় গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করলে বিকেলে অভিযুক্ত পিন্টুকে আটক করে পুলিশ।

জিএমপি কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব-এ-খোদা জানান, অভিযুক্ত পিন্টু মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে অভিযুক্তকে আদালতে পাঠানো হবে। পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে শুক্রবার গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।

সূত্র: একুশে টেলিভিশন।