পুরো কারাবাখ দখল করে নেব : আজারবাইজান প্রেসিডেন্ট

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ হুঁ’শিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ”আর্মেনিয়া নেতিবাচক ক্রিয়াকলাপ চালালে তার দেশের সেনাবা’হি’নী পুরো নগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল দ’খ’ল করে নেবে। তবে একইসঙ্গে তিনি একথাও বলেছেন, তিন দশকের আলোচনা শেষে এই অঞ্চলের মালিকানা নিয়ে দুই দেশের মধ্যকার বিরো’ধের মীমাংসা হতে চলেছে বলে তিনি ধা’রনা করছেন।

জাতিগত আর্মেনীয় নাগরিক অধ্যুষিত নগরনো-কারাবাখ অঞ্চল আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের ভূখ’ণ্ড হিসেবে স্বীকৃতি। তবে ১৯৯০-এর দশকের গোড়ার দিক থেকে অঞ্চলটি আর্মেনিয়ার ম’দ’দপুষ্ট বিদ্রো’হীদের দ’খলে রয়েছে। গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে অঞ্চলটির নিয়’ন্ত্রণ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভ’য়াব’হ সং’ঘ’র্ষ শুরু হয়। ইয়েরেভান ও বাকু উভয়ই এক্ষেত্রে উস’কানি দেয়ার জন্য পরস্পরকে দায়ী করছে।

আলিয়েভ আজ তুর্কি নিউজ চ্যানেল এনটিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আরো বলেন, ”কারাবাখের পাঁচটি বড় অঞ্চলের মধ্যে আজারি সেনারা এরইমধ্যে দুই টির নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে। তিনি স’ত’র্ক করে দিয়ে বলেন, আর্মেনিয়া একটি নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে এই অঞ্চল ত্যা’গ না করলে আজারবাইজানের সৈন্যরা বাকি তিনটি অঞ্চলও দ’খ’ল করে নেবে।

আলিয়েভ একইসঙ্গে বলেন, আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বিশেষ করে কারাবাখ সং’ক’টন নির’সনে গঠিত মিনস্ক গ্রুপ গত ২৮ বছরের এই বিরোধ নিষ্পত্তিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। ফ্রান্স, রাশিয়া ও আমেরিকার উদ্যোগে ১৯৯০-এর দশকে মিনস্ক সংকট নিরসনের জন্য মিনস্ক গ্রুপ গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু এই গ্রুপের গত প্রায় তিন দশকের প্রচেষ্টা ব্য’র্থ হয়েছে। আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট বলছেন, এবার এই গ্রুপ জোরেসোরে চেষ্টা করলে কারাবাখ সম’স্যার একট সমাধান আসতে পারে।