ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় ভয় পাচ্ছে আমেরিকা!

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর তেহরানের সামনে এখন আন্তর্জাতিক বাজারে অস্ত্র রপ্তানি করার বিরাট সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে। এ কারণে আমেরিকা অনেকটা ভীত হয়ে পড়েছে।

ইরান আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে যতটা অস্ত্র কিনবে তার চেয়ে অনেক বেশি অস্ত্র রপ্তানি করার সম্ভাবনা রয়েছে। রাজধানী তেহরানে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে এসব কথা বলেছেন। তিনি জানান, ইরানের সামরিক খাতে যে সমস্ত অস্ত্র ও সরঞ্জাম প্রয়োজন তার শতকরা ৯০ ভাগ নিজস্ব প্রযুক্তিতে দেশীয়ভাবে তৈরি হয়।

এখন ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধা’জ্ঞা উঠে যাওয়ার পর আমেরিকা যে ভয় পাচ্ছে সেটি হচ্ছে এই যে, ইরান আন্তর্জাতিক বাজারে অস্ত্র রপ্তানি করবে এবং ইরানের সামরিক প্রযুক্তি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ছড়িয়ে পড়বে। ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার ঘটনাকে তেহরানের জন্য বিরাট বিজয় বলে মন্তব্য করেন খাতিবজাদে।

সংবাদ সম্মেলনে ইরানের এক কূটনীতিক জানান, ২০১৫ সালে যখন পরমাণু সমঝোতা সই হয় তার আগে ইরানের আলোচকরা অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার বিষয়টি সমঝোতায় যুক্ত করার চেষ্টা করেন তবে তাতে বা’ধা দিয়েছিল আমেরিকা এবং তার মিত্র দেশগুলো। কিন্তু আলোচনার এক পর্যায়ে ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়টি যুক্ত করা হয় এবং তারই আলোকে গতকাল ১৮ অক্টোবর ইরানের ওপর থেকে ১৩ বছরের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যায়। তবে এই নিষেধাজ্ঞা যাতে বহাল থাকে সে জন্য দীর্ঘদিন ধরে আপ্রাণ চেষ্টা করেছে আমেরিকা।

সূত্র : পার্সটুডে