৩য় কনিষ্ঠ বোলার হিসেবে নতুন রেকর্ড গড়লেন বুমরাহ

বুধবার আবুধাবিতে আইপিএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর বনাম মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। লিগ টেবিলে যা পরিস্থিতি তাতে এদিনের ম্যাচ যে দল জিতবে, চলতি আইপিএলের প্রথম দল হিসেবে অফিসিয়ালি প্লে-অফে কোয়ালিফাই করবে সেই দল। গুরুত্বপূর্ণ সেই ম্যাচে একটি মাইলস্টোন ছুঁলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের তারকা পেসার জসপ্রীত বুমরাহ।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগের ১৬তম বোলার হিসেবে এদিন শততম উইকেট ঝুলিতে ভরলেন বুমরাহ। তবে কনিষ্ঠ বোলার হিসেবে এই কীর্তি গড়ার নিরিখে তৃতীয়স্থানে জায়গা করে নিলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স পেসার। ২৬ বছর ৩৭২ দিন বয়সে আইপিএলে শততম উইকেট শিকারি হলেন বুমরাহ। কনিষ্ঠ বোলার হিসেবে লিগে ১০০ উইকেটের নজির রয়েছে পীষূষ চাওলার ঝুলিতে। ২৬ বছর ১১৭ দিন বয়সে এই নজির গড়েছিলেন লেগ-স্পিনার চাওলা।

আবুধাবিতে এদিন দ্বাদশ ওভারে আরসিবি অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে আউট করে আইপিএলে শততম উইকেটের মালিক হন বুমরাহ। কাকতালীয় ভাবে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে বুমরাহর প্রথম শিকারের নামও বিরাট কোহলি। কোহলির উইকেট ছাড়াও এদিন আরও ২টি উইকেট দখলে নেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স পেসার। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা দেবদূত পারিক্কল এবং শিবম দুবের উইকেটও এদিন ঝুলিতে ভরেন জাতীয় দলের নির্ভরযোগ্য পেসার।

বুমরাহর আগুনে স্পেল এদিন ব্যাঙ্গালোরকে ১৬৪ রানে বেঁধে রাখতে সহায়তা করে। চার ওভার হাত ঘুরিয়ে একটি মেডেন সহ মাত্র ১৪ রান খরচ করেন বুমরাহ। সঙ্গে ৩টি উইকেট টি২০ পারফরম্যান্সের নিরিখে ব্যাপক প্রশংসনীয়। এদিন ওপেনে নেমে জোসুয়া ফিলিপ এবং দেবদূত পারিক্কল দারুণ শুরু করেন। ৭১ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপেই এদিন মূলত দাঁড়িয়ে আরসিবি ইনিংস। ফিলিপ করেন ৩৩ রান। দলের হয়ে সর্বাধিক ৪৫ বলে ৭৪ রান আসে দেবদূত পারিক্কলের ব্যাট থেকে। পারিক্কলের ইনিংসে ছিল ১২টি চার এবং ১টি ছক্কা।

রান পাননি অধিনায়ক কোহলি কিংবা ডি’ভিলিয়ার্স। কোহলি আউট হন ১৪ বলে ৯ রান করে। ডি’ভিলিয়ার্স করেন ১২ বলে ১৫ রান। বুমরাহ ছাড়া মুম্বইয়ের হয়ে একটি করে উইকেট নেন ট্রেন্ট বোল্ট, রাহুল চাহার এবং অধিনায়ক কায়রন পোলার্ড।