তিন বছর বয়সে যৌন হয়রানির শিকার হন নায়িকা ফাতিমা সানা শেখ!

দঙ্গল’ ছবিতে আমির খানের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক খ্যাতি কুড়ান ফাতিমা সানা শেখ। পরের ছবি ‘থাগস অব হিন্দুস্তান’-এ পরম্পরের বিপরীতে অভিনয় করেন। এক সাক্ষাৎকারে জানালেন, মাত্র তিন বছর বয়সে যৌন হয়রানির শিকার হন তিনি। আরো জানান, দীপিকা পাড়ুকোন বা ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের মতো দেখতে না হওয়াটা কীভাবে তার ক্যারিয়ারে প্রভাব ফেলেছে।

ফাতিমা ছোটবেলার এক ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা বলেন এভাবে, ‘আমাকে অনেক লোকেরা বলেছে সেক্সের বিনিময়েই কাজ পাওয়া যাবে। ইন্ডাস্ট্রিতে সেক্সিজম খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে। সব ইন্ডাস্ট্রিতেই থাকে। আমার মনে পড়ে আমি ৫ বছর না, ৩ বছর বয়সে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলাম। প্রতিদিন সব মেয়ে এই যুদ্ধে শামিল। আশা করি ভবিষ্যৎটা ভালো হবে।’

ক্যারিয়ারে একাধিকবার না শুনতে হয়েছে তাকে। বলেন, ‘আমাকে এটা বহুবার বলা হয়েছে যে তুমি কোনো দিন নায়িকা হতে পারবে না। তুমি দীপিকা, ঐশ্বরিয়ার মতো দেখতে না। কীভাবে তুমি নায়িকা হবে? অনেক লোক আছে যারা আপনাকে পেছনের দিকে ঠেলবে। কিন্তু আমি এখন যখন পেছনে তাকাই, আমার মনে হয় ঠিক আছে। এটাই সৌন্দর্যের মাপকাঠি এখানে। ঠিক তাদের মতো দেখতে হলেই নায়িকা হওয়া যাবে। আর আমি কোনোভাবেই ওই ব্র্যাকেটে পড়তাম না। আমি সব সময়ই আলাদা। কিন্তু এখন সুযোগ রয়েছে। আমার মতো সাধারণ দেখতে মানুষকে নিয়েও ছবি তৈরি হচ্ছে।’

বছর খানেক আগে সাইফ আলী খান ও আলী ফজলের সঙ্গে ‘ভূত পুলিশ’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হন ফাতিমা। সম্প্রতি জানা গেল, তার স্থালাভিষিক্ত হয়েছেন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। এ বিষয়ে তিনি জানান, ব্যাপারটি ইতিবাচকভাবেই দেখেন। নির্মাতারা একটি ছবির সর্বোচ্চ ভালোটাই দেখতে চান। সে দিক থেকে তার কোনো আফসোস নেই।

সূত্র: কালের কণ্ঠ অনলাইন।