সন্ত্রাসবাদ দমনে ফ্রান্সের পাশেই রয়েছে ভারত : মোদী

ফ্রান্সে জঙ্গি হামলার কড়া নিন্দা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বৃহস্পতিবার তিনি জানান, যে কোনও সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপের বিপক্ষে ভারত। সন্ত্রাসবাদ দমনে ভারত ফ্রান্সের পাশে রয়েছে। ট্যুইট করে সন্ত্রাসবাদের বিরোধিতামূলক বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

মোদী জানান, ভারত ফ্রান্সের মানুষদের পাশে রয়েছে। ফ্রান্সকে সমবেদনা জানাচ্ছে নয়াদিল্লি। উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর নবীর কার্টুন দেখানোর অভিযোগে ১৬ বছরের এক চেচেন বংশোদ্ভূত এক কিশোর ফরাসি শিক্ষকের প্রকাশ্যে মুণ্ডচ্ছেদ করে। ঘটনায় গোটা ফ্রান্স আলোড়িত। নিহত শিক্ষকের স্মৃতিতে প্যারিসের রাস্তায় শিক্ষক-অধ্যাপক-বুদ্ধিজীবীদের মিছিল বেরিয়েছে।

নবীর অবমাননার তীব্র প্রতিবাদ করছে মুসলিম দেশগুলি। সৌদিতে আন্দোলন মারাত্মক হয়ে উঠেছে। মুসলিম বিশ্বের দেশগুলি নবীর কার্টুন প্রকাশ নিয়ে পাল্টা কটাক্ষ করেছে ফ্রান্সের।

এদিন সেই বিক্ষোভে সামিল হয়েছে মালয়েশিয়াও। ট্যুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করে জানানো হয়েছে চোখের বদলে চোখ নেওয়ার রাস্তায় হাঁটেনি মুসলিমরা। সেই পথ ইসলামের নয়। ইসলাম অন্য ধর্মকে সম্মান করতে শেখায়। উদারতার কথা বলে। অন্যের ভাবাবেগকে সম্মান করে। কিন্তু ফ্রান্স তা করেনি। উলটো রাস্তায় হেঁটে বিশ্বের মুসলিমদের অবমাননা করেছে।

এদিকে, ফ্রান্সের নাইসে একটি গির্জায় ছুরি হাতে হামলা চালাল এক দুষ্কৃতি। ফরাসি সংবামাধ্যম জানাচ্ছে,ছুরির আঘাতে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে এবং বেশ কয়েকজন ঘটনায় আহত। গোটা ঘটনাকে জঙ্গিহানা বলে আখ্যায়িত করেছে খোদ শহরের মেয়র।

মেয়র খ্রিস্টান এস্ট্রোসি টুইটারে জানিয়েছেন, নটরডেম গির্জার কাছে এই হামলা চালানো হয়। পুলিশ ইতিমধ্যেই হামলাকারীকে আটক করেছে বলে জানা গিয়েছে। দু’জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে সংবাদমাধ্যম।

উল্লেখ্য, ফ্রান্সে নবীর কার্টুনকাণ্ডের পর যখন সারা দুনিয়া ঘিরে শোরগোল সেসময় এই হামলাতে জঙ্গিযোগ রয়েছে বললেন মেয়র খ্রিস্টান এস্ট্রোসি। হামলাকারী জানিয়েছেন তিনি কার্টুনকাণ্ডের জন্য উপযুক্ত শাস্তি দিতে চেয়েছিলেন।

সূত্র: কলকাতা২৪x৭।