১৯৩টি স্থাপনা দখলমুক্ত করল আজারবাইজান

আর্মেনিয়ার দখলে থাকা ১৯৩টি স্থাপনা মুক্ত করেছে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী। এর আগে আর্মেনিয়ার হাত থেকে ইরান সীমান্ত দখলমুক্ত করে নিজেদের পতাকা উড়িয়েছে আজারাবাইজানের সেনাবাহিনী। রোববার (১ নভেম্বর) এসব তথ্য জানিয়েছেন তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকাঁ।

আজেরি সেনারা আর্মেনিয়ার দখল থেকে মুক্ত করা অঞ্চলগুলো রক্ষায় প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি। গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে চলমান দুই দেশের মধ্যকার যুদ্ধে আজারবাইজানকে সমর্থন দিচ্ছে প্রতিবেশি দেশটি।

এদিন তুর্কি সংবাদ মাধ্যম আনাদোলু নিউজ এজেন্সি ও ইয়েনি শাফাক জানিয়েছে, জাঙ্গালিয়ান ও জাবরাইল জেলার সোলতানলি ও খালফলি এলাকা দখলমুক্ত করেছে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী। ওই এলাকাগুলোতে সামরিক ঘাঁটিও স্থাপন করেছে তারা।

আজারবাইজানের চিফ প্রসিকিউটর অফিস জানিয়েছে, নতুন করে সংঘাত শুরু হওয়ার পর থেকে আর্মেনিয়ার হামলায় অন্তত ৯১ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। এরমধ্যে ১১ শিশু ও ২৭ জন নারী রয়েছেন। আর্মেনিয়ার হামলায় এ পর্যন্ত অন্তত আড়াই হাজার বসতঘর, ৯২টি অ্যাপার্টমেন্ট এবং ৪২৮টি সরকারি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দাবি করেছে আজারবাইজান কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে, যুদ্ধে আর্মেনিয়ার ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণই বেশি বলে জানা গেছে। আজারবাইজানের হামলায় প্রায় দেড় হাজার আর্মেনিয়ার সেনাসদস্য নিহত হয়েছে বলে দাবি দেশটির কর্তৃপক্ষের।