আমি ভার্সিটিতে পড়ামু আর আমি জানুম না, এইডা কেমন কথা : ডিপজল

ডিপজল নামটি খবুই পরিচিত একটি নাম। অভিনেতা মনোয়ার হোসেন দেশের শীর্ষ একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াবেন। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের একটি স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। শুধু তাই নয়, কোনো কোনো অনলাইন পোর্টাল সংবাদও প্রকাশ করে ফেলেছে ফেসবুকের ওই স্ক্রিনশটের সূত্র ধরে। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট যাচাই পর্যন্ত করার প্রয়োজন মনে না করে ফেসবুকে ডিপজলের শিক্ষক শেয়ার করছেন নেটিজেনরা। বিষয়টিকে ভুয়া বলে নিশ্চিত করেছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট গ্রুপগুলোতে প্রথম ডিপজলের শিক্ষকতা বিষয়ের স্ক্রিনশটটি ছড়িয়ে পড়ে। স্ক্রিনশটে দেখা যায়, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষকতা করছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। শুধু তা-ই নয়, মনোয়ার হোসেন ডিপজলের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ই-মেইল অ্যাকাউন্টও যুক্ত করা হয়েছে। যাকে কেন্দ্র করে এত কিছু অথচ তিনিই জানেন না কিছু। শিক্ষকতা করার বিষয়টিকে ভুয়া বলে উল্লেখ করে শুক্রবার বিকেলে ডিপজল বলেন, ‘এত কিছু শুনলাম আপনার কাছে আর আমিই কিছু জানলাম না। আমি ভার্সিটিতে পড়ামু আর আমি জানুম না, এইডা কেমন কথা? এইগুলান ভুয়া, আমার লগে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউ যোগাযোগ করে নাই। ক্যান ইন্টারনেটে ছড়াইতাছে আমি কিচ্ছু জানি না। এসব মনে হয় পোলাপানের কাম।’

এই স্ক্রিনশটে সিনেমা ম্যানেজমেন্টের ওপর সপ্তাহে দুদিন ক্লাস নেবেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল- এমন তথ্য দেওয়া থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট খুঁজে এ রকম কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। সপ্তাহের প্রতি রবিবার এবং বুধবার সকাল ১১টা থেকে ১২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ক্লাস নেবেন ডিপজল- স্ক্রিনশটে এমন তথ্য জুড়ে দেওয়া হয়েছে।তবে আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সের অধীনে ‘মিডিয়া অ্যান্ড মাস কমিউনিকেশন্স’ বিভাগ চালু রয়েছে। যেখানে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স চালু রয়েছে। মিডিয়া অ্যান্ড মাস কমিউনিকেশন্স-এর অধীনে ‘সাউথ এশিয়ান সিনেমা’ নামে একটি কোর্স থাকলেও ‘সিনেমা ম্যানেজমেন্ট’ নামে কোনো কোর্স পাওয়া যায়নি। তবে দু-একজন স্ক্রিনশটের বিষয়ে লিখেছেন, এটি একটি মিম।